সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০১:৩০ অপরাহ্ন
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: [email protected]

লালমনিরহাটে সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর বিরুদ্ধে নির্বাচন আচরণ বিধি লংঘনের অভিযোগ

রকিবুল ইসলাম রুবেল, লালমনিরহাট
Update : সোমবার, ৮ নভেম্বর, ২০২১, ৬:০৩ অপরাহ্ন

রকিবুল ইসলাম রুবেল,লালমনিরহাটঃ লালমনিরহাটে সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর বিরুদ্ধে তুষভান্ডার ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আচরণ বিধি লংঘণের অভিযোগ তুলেছে খোদ মন্ত্রীর ছোটভাইয়ের স্ত্রী সাজেদা বেগম।
এই নিয়ে তোলপাড় চলছে। এবারের ইউপি নির্বাচনে মন্ত্রীর পরিবারের অভ্যন্তরিণ দ্বন্দ প্রকাশ্য এসেছে। মন্ত্রী আজ সোমবার নৌকামার্কার প্রার্থী নির্বাচনী বৈঠক ও গতকাল তুষভান্ডার ইউপি চত্বরে র্ভাচুয়াল মাধ্যমে ঢাকা হতে বলেন, মহিলাদের নির্বাচন করতে হবে। মোটরসাইকেল মার্কা নয় ভোট দিতে হবে নৌকায়। প্রকাশ্য একজন সরকারের মন্ত্রী প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাওয়াকে নির্বাচন আচরণ বিধি লংঘনের সামিল বলে অভিযোগ করার প্রস্তুতি নিয়েছে প্রার্থী সাজেদা বেগম।  এদিকে নারী সংগঠন গুলো তার বক্তব্যে হতাশা ব্যক্ত করেছেন। সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মন্ত্রীর নারী প্রার্থী নিয়ে  বক্তব্য ভাইরাল হচ্ছে।
জানা গেছে, আগামী ২৮ নভেম্বর তুষভান্ডার ইউপি নির্বাচন। এই নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছে মন্ত্রীর ছোট ভাই জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি ও কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহাবুব আহম্মেদের স্ত্রী সাজেদা বেগম। প্রার্থী সাজেদা বেগম উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি। তিনি নৌকা মার্কা প্রতীকে ইউনিপ নির্বাচন করতে মনোনয়ন চেয়ে আবেদন করে ছিল। তৃণমূলের ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ তাঁকে প্রার্থী করতে সুপারিশ করে ছিল। কিন্তু তাঁকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়নি। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। প্রার্থী সাজেদা বেগমের স্বামী উপজেলা চেয়ারম্যান মাহাবুব আহম্মেদ তিনি দীর্ঘদিন তুষভান্ডার ইউপির চেয়ারম্যান ছিলেন। বর্তমানে তিনি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। তৃণমূলের নেতা কর্মীদের মাঝে অত্যন্ত জনপ্রিয়। তাঁকে পারিবারিক কারণে মন্ত্রী হেয় করতে স্ত্রীর কে দলীয় মনোনয়ন পেতে বিরোধিতা করেছে বলে জানান।
প্রার্থী সাজেদা বেগম জানান, বর্তমান সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রী আমার বড়ভাইতুল্য। তিনি ইউনিয়ন, উপজেলা ও এমপি নির্বাচন করে আজ এ পর্যন্ত এসেছেন। তার প্রতিটি নির্বাচনে দিনরাত মাঠ পর্যায়ে রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে জীবনবাজি রেখে পরিশ্রম করেছি। তৃণমূলের একজন রাজনৈতিক কর্মী হয়ে কাজ করেছি। তখন বেহায়া হলাম না। তখন মহিলাদের ঘরের বাহিরে যাওয়া নিষেধ ছিলনা। এখন প্রার্থী হওয়ায় নারী বেহায়া হয়ে গেলাম। তারমত মানুষের মুখে এসব বেমানান। নুরুজাম্মান আহম্মেদ এমপি সাহেব সমাজকল্যাণ মন্ত্রী এটা ভুলে গেলে চলবেনা। তিনি  নির্বাচণে আচরণ বিধি লংঘন করছেন। আমি পারিবারিক সদস্য হিসেবে নই। তৃণমূলে রাজনীতি করা একজন কর্মী। জনগণের সমর্থন রয়েছে আমার দিকে। জনসমর্থনের প্রতি সম্মান রেখে প্রার্থী হয়েছি। নির্বাচন কমিশনে  অভিযোগ করার প্রস্তুতি নিয়েছি। মাঠে প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত থাকায় একটু বিলম্ব হয়েছে। প্রার্থী সাজেদা বেগম আরো জানান, তৃণমূলের নেতাদের মতামত  প্রত্যাখান করে বিএনপি হতে দলছুট হাইব্রিডকে নৌকার প্রার্থী করা হয়েছে। এর জবাব তৃণমূলের বঙ্গবন্ধুর কর্মীরা একদিন নিবেন। সেইদিন খুব সামনে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host