রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৯:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
প্রধানমন্ত্রী বিরোধীদের আন্দোলনকে স্বাগত জানালেন ফকিরহাটে ১০বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার পিরোজপুরে র‌্যাবের অভিযানে ৭৯ ফেনসিডেল সহ এক যুবকে গ্রেপ্তার শৈলকুপায় বাসচাপায় কৃষক নিহত ফরিদপুরের মধুখালীতে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহত লালমনিরহাটে সাংবাদিকের উপর হামলার মূল আসামি কুড়িগ্রাম রাজারহাট থেকে গ্রেফতার বোয়ালমারীতে মাথায় ডিম ভেঙে বন্ধুর জন্মদিন পালন, ৬ কিশোর আটক জাতীয় শোক দিবস পালনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অর্থ সহায়তা দিলেন ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মিরাজুল ইসলাম মোহাম্মদপুরে ১৫ ই আগষ্ট উপলক্ষে শিশুদের কবিতা আবৃতি ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা শৈলকুপায় স্কুল ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: [email protected]

কুড়িগ্রামে অন্তসত্বা স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসির আদেশ

Reporter Name
Update : মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ১:৪৬ অপরাহ্ন

হাফিজ সেলিম, কুড়িগ্রামঃ  জেলার ভুরুঙ্গামারীতে প্রেম করে বিয়ে অতঃপর  অন্তসত্বা স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে ঘাতক স্বামী রাসেল বাবুকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে বিজ্ঞ বিচারক । ঘাতক ঐ স্বামী হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই পলাতক রয়েছে।
আজ (২ ফেব্রুয়ারি) মঙ্গলবার দুপুরে  কুড়িগ্রামের জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল মান্নান তার জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় প্রদান করেন।
মামলায় সরকার পক্ষে বিজ্ঞ কৌশলী ছিলেন এডভোকেট আব্রাহাম লিংকন এবং আসামী পক্ষের আইনজীবি ছিলেন এডভোকেট ফখরুল ইসলাম ও সিদ্দিকুর রহমান।
আদালত সূত্র ও মামলার বিবরণে জানা যায়,জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার নাখারগঞ্জ এলাকার সাইফুল ইসলামের ছেলে রাসেল (৩২) এর সাথে একই উপজেলার দক্ষিন পাথরডুবি গ্রামের হাতেম আলীর কন্যা পিংকী খাতুন শিল্পীর (২২) প্রথম প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি জানাজানির পর দুই পরিবারের মধ্যস্থতায় তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই  পিংকির উপর নেমে আসে যৌতুকলোভী স্বামীর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার । দেড় বছরের দাম্পত্য জীবনে পিংকী ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। যৌতুকের দাবি মেটাতে ব্যর্থ অন্তঃসত্ত্বা পিংকী স্বামীর শারীরিক  নির্যাতনে অতিষ্ট হয়ে এক পর্যায়ে স্বামীর থেকে বাবার বাড়ি চলে আসে। পিংকী আর স্বামীর বাড়িতে ফিরে না যাওয়ায় স্বামী রাসেল নিজেই স্ত্রীকে নিতে শ্বশুরবাড়িতে এসে ১০ দিন ধরে অবস্থান করে। ঘটনার দিন ২৭ মে ২০১১ সালে শ্বশুরবাড়ির লোকজন পিংকী ও রাসেলকে বাড়িতে রেখে জনৈক আত্মীয়ের বাড়িতে দাওয়াত খেতে যায়। এ সুযোগে ঘাতক স্বামী রাসেল স্ত্রী পিংকীকে ঘরের ভেতর শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ বিছানার উপর রেখে পালিয়ে যায়। ওই দিন দাওয়াত খেয়ে ফিরে এসে পিংকীর মা রোকেয়া তাদের ঘরে পিংকীর নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা ছুটে আসে এবং ঘটনা প্রত্যক্ষ করে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করে। ওই দিনই পিংকীর মা রোকিয়া বেগম ঘাতক রাসেল বাবুকে প্রধান  আসামি করে ভুরুঙ্গামারী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। দীর্ঘ ১০ বছর মামলা চলার পর সন্দেহাতীত ভাবে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক এ রায় প্রদান করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host