মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২:৩০ অপরাহ্ন
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: [email protected]

বিএসএফ’র দুই সদস্যের মৃত্যুতে করোনার ভয়ে সীমান্তে রেড এলার্ট জারি

রকিবুল ইসলাম রুবেল, লালমনিরহাট প্রতিনিধি
Update : সোমবার, ১০ মে, ২০২১, ৬:৫৫ পূর্বাহ্ন

রকিবুল ইসলাম রুবেল, লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী সীমান্তের ওপারে ভারতের কুচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ মহকুমার চ্যাংরাবান্ধ্যা ও বিএসবাড়ী বিএসএফ ক্যাম্পের দুই সদস্য শ্বাস-কষ্ট জনিত কারণে শুক্রবার মৃত্যু বরণ করেন। করোনায় আক্রান্ত বিএসএফ দুইজন সদস্য মারা গেছেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে সীমান্তে রেড এলার্ট জারি করে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেন রংপুর ৬১ ব্যাটালিয়ন ও রংপুর ৫১ ব্যাটালিয়ন সিও লে.কর্ণেল পদ-মর্যদার কর্মকর্তাগণ (পরিচালক)।
শনিবার দহগ্রাম ঘুরে দেখা যায়, তিনবিঘা করিডোরে সন্ধ্যার আগে বিজিবি’র পানবাড়ি কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার নজরুল ইসলাম জনসাধারণকে সতর্ক থাকার তাগিদ দিচ্ছেন। এ সময় দহগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান,৭ নং ওয়ার্ড সভাপতি খলিলুর রহমান, ৮ নং মেম্বর বুলু, ৯ নং মেম্বর হবিসহ স্থানীয় ৫০/৬০ জন লোক উপস্থিত ছিলেন।
পানবাড়ি কোং কমান্ডার নজরুল ইসলাম এ সময় বলেন, বহুল আলোচিত দহগ্রাম ইউনিয়ন সীমান্তের চারদিকে কাটাতার বিহীন। ভারতীয় কোন লোক যেন সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে ঢুকে না পড়ে সেজন্য সকলকে সতর্ক থাকা চাই। তিনি বলেন, গত এক সপ্তাহে দহগ্রাম ও পানবাড়ি চেকপোস্টে বাংলাদেশি ১১ জন লোক আটক করে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।
ওইসব লোক ভারত থেকে দহগ্রাম হয়ে নিজ বাড়ি ফেরার সময় চেকপোস্টে তল্লাসীর সময় বিজিবি’র হাতে ধরা পড়েন। ৫১ বিজিবি’র এ কর্মকর্তা আরো জানান, পানবাড়ি, দহগ্রাম আঙ্গারপোতাসহ বিভিন্ন পয়েন্টে রেড এলার্ট (সতর্কতা জারি) করেছেন বিজিবি।
ভারতে বর্তমানে করোনা ভয়াবহ রুপ ধারন করেছে। এ কারণে মাস্ক পরিধান ছাড়া কাউকে তিনবিঘা করিডোর ক্রসিং করতে দিচ্ছে না বিএসফ।
বিজিবি-বিএসএফ যৌথ সিদ্ধান্তে তিনবিঘা করিডোর চেকপোস্ট পয়েন্টে মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিধি মেনে জনসাধারণ চলাচলের উপর বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। কারও মুখে মাস্ক না থাকলে করিডোরের পাশের একটি দোকান থেকে মাস্ক সরবরাহ করা হচ্ছে।
এদিকে, বুড়িমারী ইমিগ্রেশন হয়ে ভারত ফেরত ২৫০ শিক্ষার্থী ও অভিভাবককে উপজেলার বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে তিনদিনের কোয়ারেন্টাইনে রেখেছেন পাটগ্রাম উপজেলা প্রশাসন এমন তথ্য জানা গেছে।
ইমিগ্রেশন ওসি আনোয়ার হোসেন ও পাটগ্রাম ইউএনও সাইফুর রহমান যাত্রীদের কোয়ারেন্টিনে রাখার বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host