সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১২:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
ডুমুরিয়ার মাদরাসায় বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী পালন প্রধানমন্ত্রী বিরোধীদের আন্দোলনকে স্বাগত জানালেন ফকিরহাটে ১০বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার পিরোজপুরে র‌্যাবের অভিযানে ৭৯ ফেনসিডেল সহ এক যুবকে গ্রেপ্তার শৈলকুপায় বাসচাপায় কৃষক নিহত ফরিদপুরের মধুখালীতে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহত লালমনিরহাটে সাংবাদিকের উপর হামলার মূল আসামি কুড়িগ্রাম রাজারহাট থেকে গ্রেফতার বোয়ালমারীতে মাথায় ডিম ভেঙে বন্ধুর জন্মদিন পালন, ৬ কিশোর আটক জাতীয় শোক দিবস পালনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অর্থ সহায়তা দিলেন ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মিরাজুল ইসলাম মোহাম্মদপুরে ১৫ ই আগষ্ট উপলক্ষে শিশুদের কবিতা আবৃতি ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: [email protected]

ইউক্রেন চেরনোবিলে পারমাণবিক ‘ডার্টি বোমা’ তৈরি করছিল

Reporter Name
Update : সোমবার, ৭ মার্চ, ২০২২, ৬:৩৫ অপরাহ্ন

ইউক্রেন নাকি চেরনোবিল পারমাণবিক কেন্দ্রে একটি প্লুটোনিয়াম-ভিত্তিক “ডার্টি বোমা” তৈরি করছিল। রাশিয়ান মিডিয়া রবিবার একটি অজ্ঞাত সূত্রের বরাত দিয়ে একথা বলেছে। যদিও বক্তব্যের সপক্ষে কোনও প্রমাণ তারা দেখতে পারেনি। এই ডার্টি বম্ব কী? যার প্রস্তুতি ঠেকাতে চেরনোবিল পারমাণবিক কেন্দ্রে হামলা চালাল রাশিয়া। ইউনাইটেড স্টেটস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) অনুসারে, একটি ডার্টি বোমা হল তেজস্ক্রিয় পাউডার বা পেলেট সহ ডিনামাইটের মতো বিস্ফোরকের মিশ্রণ। ডার্টি বোমা এবং “রেডিওলজিক্যাল ডিসপারসাল ডিভাইস” (RDD) শব্দ দুটি প্রায়ই একে অপরের সাথে ব্যবহার করা হয়। বিশেষজ্ঞ মহল বলছে, মূলত তেজষ্ক্রিয় পদার্থ প্লুটোনিয়াম দিয়ে তৈরি করা হচ্ছিল এই মারণ অস্ত্র। কিন্তু বিস্ফোরণ হলে সাধারণ বোমার চেয়ে অনেক বেশি ক্ষতি হতে পারে এলাকার।

পাশাপাশি, বিস্ফোরণস্থল থেকে কয়েক কিলোমিটারজুড়ে এক বছরের বেশি সময় ধরে প্রভাব থেকে যায় তেজষ্ক্রিয়তার। অসুস্থ হয়ে পড়েন এলাকাবাসী। ইউক্রেন আক্রমণের প্রথম কয়েকদিনের মধ্যে চেরনোবিল পারমাণবিক কেন্দ্রের দখল নেয় রাশিয়া। এবার সেই আক্রমণের পেছনের কারণ কি তার ব্যাখ্যা দিল পুতিনের দেশ। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার পশ্চিমাপন্থী প্রতিবেশীকে “অসামরিকীকরণ” এবং “বহির্ভূত” করার লক্ষ্যে এবং কিয়েভকে ন্যাটোতে যোগদান থেকে বিরত রাখার লক্ষ্যে ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন আক্রমণের নির্দেশ দেন। যদিও পশ্চিমারা, এই যুক্তিটিকে একটি অজুহাত হিসাবে খারিজ করে দেয়। পরিবর্তে মস্কোর উপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা এবং কিয়েভকে ভারী সামরিক এবং অন্যান্য সহায়তা দিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে পশ্চিমারা। তাস , আরআইএ এবং ইন্টারফ্যাক্স সংবাদ সংস্থা রবিবার একটি সূত্রকে উদ্ধৃত করে বলেছে যে ইউক্রেন ২০০০ সালে বন্ধ হয়ে যাওয়া চেরনোবিল পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করছে। ইউক্রেনের সরকার বলেছে যে তাদের পারমাণবিক ক্লাবে পুনরায় যোগদানের কোন পরিকল্পনা নেই, ১৯৯৪ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে যাওয়ার পর তারা পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি ছেড়ে দিয়েছে। আক্রমণের কিছু আগে, পুতিন একটি বক্তৃতায় অভিযোগ করেছিলেন যে , ইউক্রেন তার নিজস্ব পারমাণবিক অস্ত্র তৈরির জন্য সোভিয়েত ফর্মুলা ব্যবহার করছে এবং এটি রাশিয়ার উপর আক্রমণের প্রস্তুতির সমতুল্য। যদিও তিনি তার দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ উল্লেখ করেননি।

সূত্র : www.ndtv.com


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host