সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৫:০০ অপরাহ্ন
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: [email protected]

একদিনে ২৯০০ কোটি ডলার লোকসানে ফেসবুক

Reporter Name
Update : শুক্রবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২, ৬:১৬ অপরাহ্ন

মেটা প্ল্যাটফর্মের শেয়ারের রেকর্ডসংখ্যক ধসে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ একদিনেই দুই হাজার ৯০০ কোটি মার্কিন ডলার খুইয়েছেন। একই সময়ে আরেক ধনকুবের জেফ বেজোসের পোয়াবারোই বলা চলে। বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) তার সম্পদ বেড়েছে দুই হাজার কোটি মার্কিন ডলার।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে কোনো কোম্পানির একদিনে সর্বোচ্চ দরপতন হয়েছে মেটার। এক ধাক্কায় কোম্পানির বাজারমূল্য কমে গেছে ২০ হাজার কোটি মার্কিন ডলারের বেশি। এর আগে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে অ্যাপলের দরপতন হয়ে ১৮ হাজার কোটি মার্কিন ডলার সম্পদ কমে গিয়েছিল।

ফোর্বসের হিসাবে, জাকারবার্গের সম্পদ কমে দাঁড়িয়েছে সাড়ে আট হাজার কোটি মার্কিন ডলারে। আগে ফেসবুক নামে পরিচিত থাকা মেটা কোম্পানির ১২ দশমিক আট শতাংশ শেয়ারের মালিক জুকারবার্গ।

রিফিনিটিভ ডেটা বলছে, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান জেফ বেজোস কোম্পানির ৯ দশমিক ৯ শতাংশের মালিক। তিনি পৃথিবীর তৃতীয় শীর্ষ ধনী ব্যক্তিত্ব। আর জাকারবার্গ শীর্ষ ১০ থেকে ছিটকে দ্বাদশে নেমে এসেছেন।

তার ওপরে রয়েছেন ভারতীয় বাণিজ্য মুঘল মুকেশ আম্বানি ও গৌতম আদানি।

বৈদ্যুতিক যান কোম্পানি রিভিয়ানে বিনিয়োগের বদৌলতে ছুটির দিনের প্রান্তিকে অ্যামাজনের মুনাফা বেড়েছে এক হাজার ৪৩০ কোটি মার্কিন ডলার। যা চলতি বছরের শুরু থেকে তাদের মোট আয়ের দ্বিগুণ।

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে আমাজনের বার্ষিক সদস্যপদের চাঁদাও বাড়ানো হয়েছে। এতে ইন্টারনেটভিত্তিক ব্যবসায় অ্যামাজনের শেয়ারের ১৫ শতাংশ ঊর্ধ্বগতি হয়েছে।

এক বছর আগের চেয়ে ২০২১ সালে বেজোসের মোট সম্পদ ৫৭ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ৭০০ মার্কিন ডলার। করোনা মহামারিতে মানুষ অনলাইন কেনাকাটার ওপর নির্ভর করায় সবাই অ্যামাজনের দিকে ঝুঁকেছিলেন।

জাকারবার্গের একদিনে এটিই সবচেয়ে বেশি সম্পদ কমে যাওয়া। এর আগে গত নভেম্বরে একদিনে টেসলার প্রধান ইলন মাস্কের সম্পদের বিনিয়োগ মূল্য কমেছিল সাড়ে তিন হাজার কোটি মার্কিন ডলার।

টেসলায় তার শেয়ারের ১০ শতাংশ বিক্রি করে দেওয়া উচিত হবে না কি-না বলে টুইটারে তখন একটি ভোটের আয়োজন করেছিলেন ইলন মাস্ক। শেয়ার বিক্রির সেই ধাক্কা এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি টেসলা।

অতি মুদ্রাস্ফীতি ও প্রত্যাশিত সুদের হার বৃদ্ধির প্রভাবে প্রযুক্তিখাতের শেয়ারে অস্থিরতা চলছে। মেটা তার ক্ষয়ক্ষতি দ্রুতই কাটিয়ে উঠতে পারবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। এতে জুকারবার্গের সম্পদ হারানোর খবর কেবল কাগজেই থেকে যেতে পারে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host