বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মিয়ানমারের জনগণ ভারতে পালাচ্ছেন  কাটাখালী বাসস্ট্যান্ডে মহাসড়ক দখল করে ট্রাক-টার্মিনাল:দেখার কেউ নেই ফকিরহাটের লখপুর ইউনিয়নে সংরক্ষিত মহিলা মেম্বর নির্বাচিত হলেন যারা ভারতীয় বিএসএফ সীমান্তে বাংলাদেশি ভেবে ভারতীয় নাগরিককে গুলি করে হত্যা  পত্নীতলায় জমির প্রকৃত মালিক হওয়া স্বত্বেও ভূমি দস্যুদের জমি দখলের চেষ্টা হরিনাকুন্ডু’র রেসিডো ক্লিনিকে সিজারের পর নবজাতকের মৃত্যু ঝিনাইদহে দরিদ্র কৃষকদের মাঝে বিনামুল্যে সার ও বীজ বিতরণ ঝিনাইদহে কমিউনিটি ও বিট পুলিশিং সমাবেশ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়ন্ত্রণ করতে হবে অর্থমন্ত্রী মহম্মদপুরে প্রাইম ব্যাংকের আউটলেট শাখার উদ্বোধন
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: [email protected]

কেশবপুরে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী এ এস এইচ কে সাদেকের ১৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

আ.শ.ম. এহসানুল হোসেন তাইফুর, কেশবপুর
Update : বৃহস্পতিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৭:৪৯ অপরাহ্ন

আ.শ.ম. এহসানুল হোসেন তাইফুর, কেশবপুর থেকে: সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য এ এস এইচ কে সাদেকের ১৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে স্মরণসভা, দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমীনের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এইচ এম আমির হোসেন, তপন কুমার ঘোষ মন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক গৌতম রায়, কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্ত, দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান মফিজ, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ স¤পাদক কার্ত্তিক চন্দ্র সাহা, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ, শফিকুল ইসলাম মুকুল, সামছুদ্দিন দফাদার, জেলা পরিষদের সদস্য হাসান সাদেক, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক বিশ্বাস শহীদুজ্জামান শহীদ, ছাত্রলীগের আহবায়ক কাজী আজাহারুল ইসলাম মানিক প্রমুখ। দোয়া ও মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন মাওলানা খলিলুর রহমান। এ ছাড়াও কেশবপুরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন।
উল্লেখ্য, যশোর- ৬, জাতীয়- ৯০ কেশবপুর আসন থেকে ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন দেন এবং তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে এ আসন থেকে জয় লাভ করেন। ৯৬ সালের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি আওয়ামীলীগ সরকারের শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তার প্রচেষ্টায় ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা হিসেবে স্বীকৃতি পায়। তার সময়ে কেশবপুরে সড়ক, অবকাঠামো, স্কুল, মাদ্রাসা ও কলেজের অভাবনীয় উন্নয়নের কারণে তাকে কেশবপুরের উন্নয়নের কারিগর বলা হয়ে থাকে। ২০০৭ সালের ৯ সেপ্টেম্বর তার কেশবপুরস্থ বাসভবনে সকাল ৭ টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ৭৩ বছর বয়সে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। ২১ ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি আদায়ে বিশেষ ভূমিকার জন্য ২০১০ সালে তাঁকে মরণোত্তর একুশে পদক দেওয়া হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host