রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৬:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
এই বাংলায় আমি ফিরে ফিরে আসি -এমামুল হক টগর হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগের পদ হারালেন লালমনিরহাটে করোনা আক্রান্ত হয়ে ইউনিয়ন পরিষদের সচিবের মৃত্যু টেকেরহাট বন্দরে প্রায় ৫ মাস যাবত এই ছেলেটির কোন ওয়ারিশ পাওয়া যাচ্ছে না মাদারীপুরে বাহাউদ্দিন নাছিম ফাউন্ডেশনের উদ্যেগে ফ্রি অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ মাদারীপুর জেলা ক্রাইম রিপোটার্স এসোসিয়োসনের লকডাউন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ঈদ পরবর্তি শুভেচ্ছা বিনিময় যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশ থেকে আরও পোশাক কিনতে আগ্রহী  পরকীয়ায় বেশি ‘মজা’ পায় নারীরা! ঝিনাইদহে শহরে কঠোর, গ্রামে ঢিলেঢালা ভাবে চলছে লকডাউন, মানা হচেছ না স্বাস্থ্যবিধি ঝিনাইদহে ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৬, আক্রান্ত ২৭৯ জন
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: [email protected]

মিয়ানমারের সামরিক জান্তাদের অবরোধ

Reporter Name
Update : শুক্রবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ১:২৮ পূর্বাহ্ন

নিউজ ডেস্ক: মিয়ানমারের সামরিক জান্তাদের বিরুদ্ধে অবরোধ বিষয়ক নির্বাহী আদেশ অনুমোদন করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এর আওতায় আসবেন সেদেশের সামরিক নেতারা, তাদের পরিবারবর্গ এবং তাদের ব্যবসায়িক সম্পর্ক। ফলে যুক্তরাষ্ট্রে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ১০০ কোটি ডলারের তহবিল ব্লক করা থাকবে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের সময় পুলিশ এক নারীকে গুলি করে। সেই নারীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে নেয়া হয়েছে আইসিইউতে। তার যখন এমন অবস্থা তখন যুক্তরাষ্ট্র এ ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে। গুলিবিদ্ধ ওই নারীর নাম মায়া থাউই থাউই খাইং। তিনি মঙ্গলবার বিক্ষোভে অংশ নেন। এ সময় পুলিশ বিক্ষোভে জলকামান, রাবার বুলেট ও সরাসরি গুলি চালিয়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়ার চেষ্টা করে। এতে খাইংয়ের মাথায় গুলি বিদ্ধ হয়।
এর বিরুদ্ধে ক্ষিপ্ত বাইডেন প্রশাসন। তারা দাবি করছেন মিয়ানমারের অভ্যুত্থান প্রত্যাহার করে নিয়ে বেসামরিক নেত্রী অং সান সুচিকে মুক্তি দেয়া হোক। এ বিষয়ে বাইডেন বলেছেন, মিয়ানমারের জনগণ তাদের দাবি-দাওয়া তুলে ধরছে এবং বিশ্ব সেটা দেখছে। প্রয়োজন হলে আরো কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, বিক্ষোভে যখন মানুষের সংখ্যা বাড়ছে তখন গণতান্ত্রিক অধিকার চর্চাকারী এসব মানুষের বিরুদ্ধে সহিংসতা গ্রহণযোগ্য নয়। এর প্রত্যাহার চাই আমরা। জো বাইডেন বলেন, তার প্রশাসন অবরোধের প্রথম দফা টার্গেট এ সপ্তাহেই আরোপ করতে পারে। এরই মধ্যে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর বেশকিছু নেতাকে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে নৃশংসতা চালানোর অপরাধে। জো বাইডেন বলেন, আমরা কঠোরভাবে রপ্তানি নিয়ন্ত্রণ করতে যাচ্ছি। জব্দ করছি যুক্তরাষ্ট্রের সম্পদ, যা থেকে মিয়ানমারের সরকার সুবিধা পেয়ে থাকে। তবে জনগণকে দেয়া স্বাস্থ্যসেবা, নাগরিক অধিকার গ্রুপ ও অন্যান্য ক্ষেত্রে আমাদের সহায়তা অব্যাহত থাকবে। গত মাসে ক্ষমতা গ্রহণের পর এটাই জো বাইডেনের প্রথম অবরোধের মতো কঠোর অবস্থানে যাওয়া।
ওদিকে চলমান প্রতিবাদ বিক্ষোভের মধ্যেও সেনাবাহিনী ঘেরাও ও তল্লাশি অভিযান অব্যাহত রেখেছে। এখনো গ্রেপ্তার করা হচ্ছে নেতাকর্মীদের। সম্প্রতি গ্রেপ্তার করা হয়েছে স্থানীয় সরকারের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এবং নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তাদের। কারণ, তারা সামরিক জান্তার ‘নির্বাচনে জালিয়াতির’ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন।
ওদিকে মায়া থাউই থাউই খাইংয়ের বোন মায়া থা তোয়ে নোয়ে বলেছেন তিনিও বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন। তবে তার বোন মায়া থাউই থাউই খাইংয়ের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। তার ভাষায়- হৃদয়টা ভেঙে যাচ্ছে। সংসারে তার আছে শুধু মা। বাবা মারা গেছেন এরই মধ্যে। চার ভাইবোনের মধ্যে আমি সবার বড়। মায়া থাউই থাউই খাইং ছিল সবার ছোট। মাকে আমি কিছুতেই বোঝাতে পারছি না। আমাদের মুখে কোনো কথা নেই।
এর আগে মিয়ানমারে কয়েক দশক ধরে সামরিক জান্তা ক্ষমতা দখল করে রেখেছিল। ১৯৮৮ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত সেই সময়ে বিপুল সংখ্যক বিক্ষোভকারীকে হত্যা করেছিল নিরাপত্তা রক্ষাকারীরা। ১৯৮৮ সালে নিহত হয়েছিলেন কমপক্ষে ৩০০০ মানুষ। ২০০৭ সালে হত্যা করা হয় কমপক্ষে ৩০ জনকে। এ দুটি সময়েই হাজার হাজার মানুষকে জেলে আটক রাখা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host