সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১০:০২ অপরাহ্ন
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: newssonarbangla@gmail.com

রাখালগাছি ইউনিয়ন বাসির ভাগ্যের উন্নয়নে কাজ করবো জাকির হোসেন

পি কে অলোক,ফকিরহাট প্রতিনিধি
Update : মঙ্গলবার, ২৩ মার্চ, ২০২১, ১২:৫০ অপরাহ্ন

ফকিরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ০৯নং রাখালগাছি ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ জাকির হোসেন বলেছেন আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে আমার পিতা মরহুম শেখ আনিসুর রহমান ও বড় ভাই মরহুম শেখ আবু জাফর এর হাতে গড়া এই রাখালগাছি ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ইউনিয়ন গড়ে তোলার পাশাপাশি ইউনিয়ন বাসির ভাগ্যের উন্নয়নে কাজ করে যাবো। তিনি মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় সংবাদকর্মিদের সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে একথা বলেন। তিনি বলেন আমার পিতা মরহুম শেখ আনিসুর রহমান ছিলেন, উক্ত ইউনিয়নের দুইদুই বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান। তিনি চেয়ারমান থাকাকালিন সময়ে এই ইউনিয়নকে নিজেদের হাতে সাজিয়ে ছিলেন। তিনি ১৯৭১সালে প্রথম এই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পান। তাঁর মূত্যুর পুর এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তাঁর বড় পুত্র ও আমার বড় ভাই শেখ আবু জাফর। তিনি ইউনিয়ন বাসির অক্লান্ত ভালবাসার কারনে জনগন তাঁকে দুইদুই বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন। আমি পিতা ও বড় ভায়ের আদর্শ নিয়ে বড় হয়েছি। আমি জনগনের কল্যানে কাজ করার জন্য প্রার্থী হয়েছি। জনগন চাইলে আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবো। নির্বাচিত হয়ে রাখালগাছি ইউনিয়ন-কে একটি আধুনিক ইউনিয়ন হিসাবে গড়ে তুলবো।
একপ্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, আমার পিতা মরহুম শেখ আনিসুর রহমান ও তার পুত্র আবু জাফর চেয়ারম্যান থাকাকালিন সময়ে সরকারী বরাদ্ধে ইউনিয়নের বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির, শশ্নানঘাট, ঈদগাহ মায়দান, কমিউনিটি ক্লিনিক, ভুমি অফিস, রাস্তাঘাট, ব্রীজ, কালভেট নির্মাণ সহ ব্যপক উন্নয়ন মুলক কাজ করেছেন। যা ইউনিয়ন বাসি এখনো মনে করেন। আর মনে করেন বলেই ইউনিয়ন বাসির অনুরোধে আমি তাদের দোয়া আর্শিবাদ ও সমর্থন নিয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছি। জীবনে আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নেই, আমার পিতা ও বড় ভায়ের আদর্শ বুকে ধারন করে এই ইউনিয়নের অসহায় দুস্থ্য গরীব ও দুঃখি মানুষের মুখে হাসি ফুটানোর জন্য আজীবন কাজ করেছি এখনো করতে চাই। কারণ আমার পিতা ও বড় ভাই সারা জীবন ইউনিয়ন বাসির ভাগ্যের উন্নয়নে ও জনগনের কল্যানে কাজ করেছেন। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন একজন জনপ্রতিনিধির মুল কাজ হলো, জনগনের প্রতিনিধিত্ব করা, সেখানে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা থাকতে হবে। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মন মানসিকতা নিয়ে সকলের অংশ গ্রহনে কাজ করলে ইউনিয়নবাসির ভাগ্যে উন্নয়ন ঘটানো সম্ভাব বলেও তিনি মন্তব্য করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host