সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৪১ অপরাহ্ন
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: newssonarbangla@gmail.com

বঙ্গবন্ধু সেতুর উপরে সংঘর্ষ লরিতে আগুন

Reporter Name
Update : রবিবার, ১৩ জুন, ২০২১, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

নিউজ ডেস্ক: বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর বাসের সঙ্গে সংঘর্ষের পর লরিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এসময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে দুইজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ৭ জন। সংঘর্ষের ঘটনায় লরিতে আগুন লেগে যায় বলে জানায় কর্তৃপক্ষ। পরে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সেতুর দুইপাশেই দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।
নিহতরা হলেন- নীলফামারী জেলার ডিমলা থানার মজনু (৩৩) ও একই উপজেলার রমজান আলীর ছেলে নজরুল ইসলাম (৩৪)।
শনিবার (১২ জুন) দিবাগত রাত তিনটার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর ১৯ নম্বর পিলারের কাছে উত্তরবঙ্গগামী লেনে এ ঘটনা ঘটে। এতে লরিতে থাকা দুইজন আগুনে পুড়ে ঘটনাস্থলে নিহত হয়।
বঙ্গবন্ধু সেতুর ট্রাফিক কন্ট্রোল রুম (টিসিআর) সূত্র জানায়, রাত তিনটার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর উপর উত্তরবঙ্গগামী লেনে শ্যামলী পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস একটি লরিকে পিছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে লরিটি উল্টে গিয়ে আগুন ধরে গেলে দুইজন আগুনে পুড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

আহত হয় ৭ জন। আহতদের টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া আগুনে পুড়ে যাওয়া দুইজনের মরদেহ সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু সেতুপশ্চিম থানার উপ-পরিদর্শক আরিফুল রহমান জানান, দুর্ঘটনায় কবলিত  পরিবহন দুটি উদ্ধারের পর সেতুর উপর দিয়ে যানবাহন চলাচল শুরু হয়। এরআগে সেতুর উপর গাড়িতে আগুন লাগায় সেতুর দুইপাশের মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। সকাল ৮টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সেতুপশ্চিম টোলপ্লাজা হতে কড্ডার মোড় পর্যন্ত মহাসড়কে একলেনে যানজট রয়েছে।
এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইয়াসির আরাফাত জানান, বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান, রাতে বঙ্গবন্ধু সেতুর উপর আগুন লাগার ঘটনার পর থেকেই মহাসড়কে থেমে থেমে যানবাহন চলাচল করছে। সকালের পর কিছুটা গাড়ির চাপ কমেছে। ঢাকাগামী লেনে পরিবহনের চাপ বেশি রয়েছে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে যানচলাচল স্বাভাবিক হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host