শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৯:২৮ অপরাহ্ন
নোটিশ
যে সব জেলা, উপজেলায় প্রতিনিধি নেই সেখানে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। বায়োডাটা সহ নিউজ পাঠান। Email: newssonarbangla@gmail.com

নির্বাচনে গণমাধ্যমকর্মীদেরকে বাধা দিলে ২-৭ বছরের কারাদণ্ড

Reporter Name
Update : মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ, ২০২৩, ৪:৪২ অপরাহ্ন

নির্বাচনে গণমাধ্যমকর্মী এবং পর্যবেক্ষকদের বাধা দিলে ২ থেকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেয়ার বিধান রেখে ‘জনপ্রতিনিধিত্ব (সংশোধন) আইন, ২০২৩’-এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।মঙ্গলবার (২৮ মার্চ) শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।পরে সচিবালয়ে ব্রিফিং করেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মো. মাহমুদুল হোসাইন খান।

তিনি বলেন, এ আইনে কিছু সংশোধনী প্রস্তাব করা হয়েছিল। এর মধ্যে আগে যেমন ছিল যেকোনো ইউলিটি বিল যেদিন মনোনয়নপত্র জমা দেয়া হবে তার সাত দিন আগে জমা দিতে হতো, নাহলে মনোনয়নপত্র বাতিল বলে গণ্য হতো। এখন বিলটা মনোনয়নপত্র যেদিন জমা দেবে, তার আগের দিন পর্যন্ত জমা দিতে পারবে।
 
‘মনোনয়নপত্রের সঙ্গে টিআইএন সার্টিফিকেট সংযুক্ত করতে হবে এবং কত টাকা আয়কর জমা দিয়েছে, সেটাও রশিদ অনুযায়ী দিতে হবে। এটা আগে ছিল না, নতুন করে এ দুটি অংশ যোগ করা হয়েছে,’ বলে জানান সচিব।
 
মাহমুদুল হোসাইন খান বলেন, গণমাধ্যমকর্মী এবং পর্যবেক্ষকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য একটি বিধান রাখা হয়েছে। যদি কেউ গণমাধ্যমকর্মী এবং পর্যবেক্ষকদের আইনানুগ কাজে বাধা প্রদান করেন, সেক্ষেত্রে দুই থেকে সাত বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।  উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, ধরুন আপনি ক্যামেরা নিয়ে গেলেন কিন্তু আপনাকে বেরিয়ে যেতে বলা হলো। আপনার বৈধভাবে প্রবেশ করার অধিকার থাকার পরে জোর করে আপনাকে বের করে দেয়া হলো অথবা ক্যামেরা ভেঙে ফেলা হলো এমন অনেক কিছুই হতে পারে। সেক্ষেত্রে দুই থেকে সাত বছর পর্যন্ত সশ্রম কারাদণ্ড দেয়ার বিধান রাখা হয়েছে।
 
 মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব বলেন, এ বিধানের নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে, এখনো ফাইনাল করা হয়নি। আরও কিছু সংশোধন আছে। আরও কিছু মতামতসহ এটা আবার মন্ত্রিসভায় উপস্থাপিত হবে। তারপরে আরও কিছু যদি সংযোজন হয়, সেটাসহ পাস করা হবে। 
আইনে ছোটখাটো অনেকগুলো বিষয় আছে জানিয়ে তিনি বলেন, যেমন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার নিয়োগের আগে শুধু ডিস্ট্রিক্ট (জেলা) উল্লেখ করা ছিল। এখন জেলার পরিবর্তে প্রতিটি আসনে হবে। অর্থাৎ ৩০০ আসনে ৩০০ জন রিটার্নিং অফিসার থাকবে-এমন আলোচনা হয়েছে। 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Theme Created By Uttoron Host