Monday, January 20, 2020, 5:46 pm

সংবাদ শিরোনাম :
যুক্তরাষ্ট্রের তুলনায় বাংলাদেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড কম – পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইবি ফার্মেসী বিভাগের আয়োজনে আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত শৈলকুপার নাগিরাট ঘাটে ব্রীজের অভাবে ৫০ গ্রামের মানুষের দূর্ভোগ কালীগঞ্জে মাঠ থেকে অজ্ঞাত পুরষের মৃতদেহ উদ্ধার ডুমুরিয়ায় পাবলিক হেয়ারিং ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছে আলোর বার্তা পত্নীতলা প্রেসক্লাবের সাবেক যুগ্মসাধারন সম্পাদক দুলাল চৌধুরীর মৃত্যু বার্ষিকী পালিত ঝিনাইদহ ডিবি পুলিশের অভিযানে ২ মাদক ব্যবসায়ী সহ বিপুল পরিমান ফেনসিডিল আটক জায়রা বিচার পেলেন আইটি খাতের আয় পোশাক খাতকে ছাড়িয়ে যাবে : জয় খুলনায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিবের মতবিনিময় সভা লক্ষীপুরে সাংবাদিকের উপর ডায়াগনস্টিক মালিকের হামলা: আটক-৩ খুলনায় ক্ষুদে ডাক্তার বিষয়ে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত

এশিয়ার দেশে দেশে ডেঙ্গুর ভয়াল ছোবল

এশিয়ার দেশে দেশে ডেঙ্গুর ভয়াল ছোবল

এশিয়ার দেশে দেশে ডেঙ্গুর ভয়াল ছোবল
ফাইল ছবি

এ বছর এশিয়ার, বিশেষত দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশে দেশে ভয়াল ছোবল হেনেছে ডেঙ্গু। বাংলাদেশের পাশাপাশি থাইল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, চীন, মিয়ানমার, সিঙ্গাপুর ও ফিলিপাইনে লাখ লাখ লোক এই জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। ইতোমধ্যেই প্রাণ হারিয়েছেন অনেকেই। তবু মিলছে না পরিত্রাণ, প্রতিদিনই বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। সরকারের পক্ষ থেকে ডেঙ্গু সতর্কতা জারি করা হয়েছে এসব দেশে। এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, প্রতি বছর বিশ্বে ৩৯ কোটি লোক ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে থাকেন। এ ছাড়া আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন ১২৮টি দেশের প্রায় চারশ কোটি লোক। বাংলাদেশে গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ২০ হাজার। সরকারের হিসাবে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গুতে ১৪ জনের মৃত্যুর তথ্য এলেও বিভিন্ন গণমাধ্যমের হিসাবে মৃতের সংখ্যা অর্ধশত ছাড়িয়েছে। চলতি মৌসুমে থাইল্যান্ডে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৫০ হাজার লোক, যার মধ্যে মারা গেছেন ৬২ জন। সিঙ্গাপুরে আক্রান্ত ১০ হাজার রোগীর মধ্যে মারা গেছেন ৯ জন। ভিয়েতনামে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৬০ হাজার এবং মারা গেছেন চারজন। ভারতে ৭ হাজারের বেশি আক্রান্তের মধ্যে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৪ জন। মিয়ানমারে ডেঙ্গু আক্রান্ত চার হাজারের মধ্যে ১৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। মালয়েশিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন চার হাজার, মারা গেছেন একজন। শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, সেখানে ডেঙ্গু জ্বরে ২২ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। থাইল্যান্ডে আক্রান্তের সংখ্যা বছরশেষে লক্ষাধিক ছাড়াবে বলে আশঙ্কা করছেন কর্মকর্তারা। ফিলিপাইনে রীতিমতো মহামারি আকার ধারণ করেছে ডেঙ্গু । দেশটির লক্ষাধিক লোক আক্রান্ত হয়েছেন এ রোগে, অর্ধ সহস্র মারা গেছেন ইতোমধ্যেই। কর্মকর্তারা জানান, এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা আশঙ্কাজনক বেড়েছে যা ২০১৮ সালের তুলনায় প্রায় ৮৫ শতাংশ বেশি। ডেঙ্গুতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও কিশোররা। মোট ডেঙ্গু রোগীর ৩৯ শতাংশের বয়স পাঁচ থেকে নয় বছরের মধ্যে। সারা বছর মশাবাহিত এ রোগের আশঙ্কা থাকলেও মূলত বর্ষাকালেই ডেঙ্গুর প্রকোপ মারাত্মক আকার ধারণ করে। বিগত কয়েক দশক ধরেই দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে বর্ষাকালে আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে গেছে ডেঙ্গুর উপদ্রব। সবচেয়ে বড় আশঙ্কার কথা, আক্রান্ত দেশগুলোতে এডিস মশা নিধনে কোনো কাজ করছে না প্রচলিত ওষুধ। এসব দেশেও মশা নিধনে বাংলাদেশের মতোই ডেল্টামেথ্রিন ও মেলাথিউন ব্যবহার করা হয়। কিন্তু গত কয়েক বছরে এসব ওষুধ-প্রতিরোধী হয়ে উঠেছে এডিস মশা। ফলে মারাত্মক রূপ নিচ্ছে ডেঙ্গুর ভয়াবহতা। ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব রেড ক্রস এন্ড রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিজের (আইএফআরসি) এশিয়া-প্যাসিফিকের স্বাস্থ্য সমন্বয়ক তারহি হেইনাসমাকি জানান, জলবায়ু পরিবর্তন ও ভাইরাসের কারণে মহামারী রূপ নিয়েছে ডেঙ্গু । ২৫ থেকে ১৯ ডিগ্রি তাপমাত্রায় থাকা সব দেশেই ডেঙ্গু পরিস্থিতি উদ্বেগজনক।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন অথবা রেজিস্টার করুন

© All rights reserved © 2018 Newssonarbangla