Templates by BIGtheme NET
ব্রেকিং নিউজ ❯
Home / জেলার খবর / যানজটে আকাল নগরবাসী ভোর থেকে সন্ধ্যা চট্টগ্রামের ইপিজেড যানজটের দূর্বিষহ দূর্ভোগে বন্ধি

যানজটে আকাল নগরবাসী ভোর থেকে সন্ধ্যা চট্টগ্রামের ইপিজেড যানজটের দূর্বিষহ দূর্ভোগে বন্ধি

Inline image 1

আমিনুল হক শাহীন, চট্টগ্রাম ব্যুরো:ঘনবসতি পূর্ণ এলাকা চট্টগ্রামের বন্দর ইপিজেড সড়কে নিত্যদিনের দূর্বিষহ যানজট বিষপোড়ায় পরিণত হয়েছে। ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ব্যস্ততম এই সড়কে যানজট লেগেই থাকে। যানজটের চরম দূর্ভোগে নাকাল হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী। বিকল্প কোনো সড়ক না থাকায় জনদূর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। ব্যস্ততম ইপিজেড এলাকার এই সড়কটি দিয়ে শাহ্ আমানত বিমানবন্দর, সিইপিজেড ও কেইপিজেডসহ তেল শোধনাগার পদ্মা, মেঘনা, যমুনাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের যানবাহন চলাচল ও লক্ষ লক্ষ মানুষের যাতায়াত। বিশেষ করে সল্টগোলা ক্রসিং থেকে নেভী হাসপাতাল সিমেন্ট ক্রসিং ও কেইপিজেড এর সড়ক পর্যন্ত দিনের অধিকাংশ সময়ই ভয়াবহ যানজট লেগে থাকে। সরেজমিনে দেখা যায়, নগরীর দক্ষিণ হালিশহরের আওতাধীন সিইপিজেড এলাকা ঝনক প্লাজার উল্টো দিকে প্রধান সড়ক দখল করে সব্জির বিশাল আড়ৎ। আড়তের ব্যবসায়ীরা সকাল সন্ধ্যা সব্জি উদ্ভৃষ্টাংশ ও সব্জির গাড়ী থাকায় যানজট প্রকট আকার ধারণ করে। আড়তের সব্জির উচ্ছিষ্টের পাশাপাশি ময়লা আর্বজনার স্তুপ প্রধান সড়ক জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকতে দেখা যায়। এলাকাবাসীর অভিযোগ রাতে সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মীরা ময়লার স্তুপ অপসারণ করলেও দিনের বেলায় এ দূর্ভোগ পোহাতে হয় হাজার হাজার গার্মেন্টস্ শ্রমিকদের। সড়কটি দু’পাশ জুড়ে ফুটপাত দখল করে রেখেছে হকাররা। সড়কটিতে ময়লা আর্বজনা পঁচাÑর্দূগন্ধ ও ভয়াবহ যানজটে শ^াসÑপ্রশ^াস বন্ধ হওয়ার উপক্রম। এ সড়ক দিয়ে পথচারীদের মুখে রুমাল দিয়ে চেপে চলতে হয়। আড়তের ঝুটÑঝামেলা ও যানজটের কারণে প্রতিদিন সকাল সন্ধ্যা গার্মেন্টস্ শ্রমিকদের চরম দূর্ভোগ অতিক্রম করে চলাফেরা করতে হয়। বিশেষ করে সকাল ৭টাÑ১০ পর্যন্ত, বিকাল ৪টা থেকে রাত গভীর পর্যন্ত ইপিজেডের যানজটের কবলে পড়তে হয় নগরীর লক্ষ লক্ষ মানুষকে। প্রায় সময় সড়কটি যানজটের কারণে জরুরী পণ্যের গাড়ী, মুমূর্ষু রোগী ও বিমানের যাত্রীদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়। ৩৯নং ওয়ার্ড বাসিন্দা আবু তাহের জানান আধুনিক নগরায়নের জন্য নগর পরিকল্পনা বিভাগ যদি শ্রীঘ্রই কোন উদ্যোগ না নেন, তাহলে নগরবাসীকে চরম যানজটের জাতাকলে পিষ্ট হতে হবে। ৩৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ¦ জিয়াউল হক সুমন বলেন ‘সল্টগোলা ক্রসিং থেকে এয়ারপোর্ট পর্যন্ত বিকল্প সেতু ফ্লাইওভার’ নির্মাণ না করলে যানজটের কবল ওহষরহব রসধমব ১থেকে রক্ষা পাবে না নগরবাসী। তিনি আরো বলেন যানজট ও ঘনবসতির চাপ থেকে রক্ষার জন্য বন্দরের পণ্য গাড়ী যাতায়াতের জন্য পতেঙ্গা থেকে সীতাকুন্ড পর্যন্ত রিং রোড তৈরী হচ্ছে। এতে করে এ এলাকার যানজট অনেকাংশে হৃাস পাবে বলে আশা করি। গার্মেন্টস্ শ্রমিক রনি জানান নিত্যদিনের যানজটের কারণে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চার ঘন্টা যানজটের কবলে পড়ে থাকতে হয়।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful