Templates by BIGtheme NET
Home / শীর্ষ সংবাদ / প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ার মানুষের অবস্থা দেখতে ও গ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগে ভ্যানে ঘুরে বেড়ান হাস্যোজ্জ্বল প্রধানমন্ত্রী নাতি-নাতনিদের নিয়ে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ার মানুষের অবস্থা দেখতে ও গ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগে ভ্যানে ঘুরে বেড়ান হাস্যোজ্জ্বল প্রধানমন্ত্রী নাতি-নাতনিদের নিয়ে

দৃশ্যটি অভূতপূর্ব। কোলে নাতি, পাশে নাতনি_ এভাবেই পরিবারের সদস্যদের নিয়ে শুক্রবার গোপালগঞ্জের গ্রামের পথে ভ্যানে করে বেড়াতে বের হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চলতে চলতে হয়তো শৈশবে হারিয়ে গিয়েছিলেন তিনি - পিআইডি

দৃশ্যটি অভূতপূর্ব। কোলে নাতি, পাশে নাতনি_ এভাবেই পরিবারের সদস্যদের নিয়ে শুক্রবার গোপালগঞ্জের গ্রামের পথে ভ্যানে করে বেড়াতে বের হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চলতে চলতে হয়তো শৈশবে হারিয়ে গিয়েছিলেন তিনি – পিআইডি
এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির  : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ার মানুষের অবস্থা দেখতে ও গ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগে ভ্যানে ঘুরে বেড়ান হাস্যোজ্জ্বল প্রধানমন্ত্রী নাতি-নাতনিদের নিয়ে ।

টুঙ্গিপাড়ার মানুষের কাছে শীতের সকালটি ছিল বৈচিত্র্যময় ও ব্যতিক্রমী। রিকশাভ্যানে ঘুরছেন হাস্যোজ্জ্বল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা; দেখছেন তার শৈশব স্মৃতির স্থানগুলো। গ্রামের বিভিন্ন স্থানে ভ্যান থামিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে প্রাণ খুলে কথা বলছেন, নিচ্ছেন তাদের খোঁজখবর। আরও অবাক করে ফেরার পথে এক কিলোমিটার রাস্তা হাঁটেন তিনি। গতকাল শুক্রবার টুঙ্গিপাড়ায় নাতি-নাতনিদের নিয়ে সরকারপ্রধানকে এভাবেই ঘুরতে দেখা যায়। প্রধানমন্ত্রীর ভ্রমণের এ ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ব্যাপক সাড়া ফেলে। মুহূর্তেই হাজার হাজার শেয়ার ও লাইক পড়ে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানান, গ্রামবাসীকে বিস্মিত করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পৈতৃক নিবাস টুঙ্গিপাড়ার মানুষের অবস্থা দেখতে ও গ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগে ভ্যানে ঘুরে বেড়ান প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বেলা ১১টার

দিকে ভ্যানে চড়ে প্রায় ১৫ মিনিট গ্রামটি পরিদর্শন করেন। তিনি বঙ্গবন্ধু স্মৃতিসৌধ থেকে প্রায় এক কিলোমিটার পর্যন্ত যান। তিনি আরও জানান, প্রধানমন্ত্রীকে কাছে পেয়ে স্থানীয় মানুষ বিস্ময় ও উচ্ছ্বাসের সঙ্গে প্রাণ খুলে তার কাছে সুখ-দুঃখের কথা বলেন। এ সময় তারা তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথাও তুলে ধরেন। প্রধানমন্ত্রী তাৎক্ষণিকভাবে এসব সমস্যা সমাধানে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন।

পিআইডির ছবিতে দেখা যায়, নাতি কায়াস সিদ্দিককে কোলে নিয়ে ভ্যানের সামনের একপাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা; গায়ে চেক প্রিন্টের ধূসর সাদারঙা টাঙ্গাইলের সুতি শাড়ি, নীল পাড়ের আঁচলে লাল-কালো রঙের কম্বিনেশনের কারুকাজ। সামনের অন্যপাশে ছোট বোন শেখ রেহানার ছেলে রেদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি। পেছনে তার স্ত্রী পেপি সিদ্দিক ও মেয়ে নীলা। শীতের সকালে পৈতৃক এলাকায় ভ?্যানে চেপে সরকারপ্রধানের এই ভ্রমণের সময় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা রক্ষীরা আশপাশেই রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীকে নিজের ভ্যানে চড়ানোর আনন্দে উজ্জ্বল ভ্যানচালকের মুখও।

গত বৃহস্পতিবার গোপালগঞ্জে একাদশ জাতীয় রোভার মুট উদ্বোধন করে দুপুরে টুঙ্গিপাড়ায় যান শেখ হাসিনা। এরপর পৈতৃক বাড়িতে নিজের পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে তিনি সময় কাটান। রাতে সেখানে অবস্থানের পর গতকাল সকালে ববির পরিবারের সদস?্যদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে যান শেখ হাসিনা। সেখানে কিছুক্ষণ থাকার পর সমাধিসৌধ থেকে খানিক দূরে নিজেদের নতুন বাড়িতে যান। ওই সময়ই তিনি ভ্যানে ওঠেন বলে তার পরিবারের ঘনিষ্ঠ একজন জানান। তিনি বলেন, এসএসএফ সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীকে গাড়িতে যেতে অনুরোধ করলেও তিনি ভ্যানে যাওয়ার আগ্রহ দেখান। নতুন বাড়িতে কিছুক্ষণ থেকে পুরনো বাড়িতে ফিরে আসেন। সেখানেই দুপুরের খাবার খান। বিকেল সাড়ে ৩টায় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের মূল টম্বে প্রবেশ করেন। সেখানে তিনি জাতির পিতার কবরের পাশে দাঁড়িয়ে পবিত্র ফাতিহা পাঠ ও দোয়া-মোনাজোতে অংশ নেন। এরপর বিকেল ৪টায় শেখ হাসিনা হেলিকপ্টারে করে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful