Templates by BIGtheme NET
Home / জেলার খবর / পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক বরখাস্ত

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক বরখাস্ত

অমল তালুকদার বরগগুনা প্রতিনিধি : অনিয়ম, দুর্ণীতি আর উৎকোচ বাণিজ্যের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বরখাস্ত হয়েছেন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বরগুনা এলাকার পরিচালক মো. সালেহ উদ্দিন চুন্নু। ২০১৫ সালের ১২ জানুয়ারী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বরগুনা এলাকার পরিচালক পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। সাধারণ গ্রাহকদের সকল সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে যুক্তিসঙ্গত দাবি তুলে ধরা এবং বিদ্যুৎ সুবিধা বঞ্চিত এলাকায় বিদ্যুতের আলো পৌঁছে দিতে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহনের কথা ছিলো তার। কিন্তু স্থানীয় গ্রাহকদের অভিযোগ, টাকা ছাড়া কোন কাজই করেননি তিনি। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বিভিন্ন সুবিধা পাইয়ে দেয়ার কথা বলে শত শত গ্রাহকদের কাছ থেকে তিনি গত দু’বছরেই হাতিয়ে নিয়েছেন কয়েক কোটি টাকা। একজন সাধারণ ঠিকাদার থেকে এখন তিনি হয়েছেন কোটিপতি ব্যবসায়ী। তদন্ত প্রতিবেদনে অনিয়ম দুর্ণীতির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গত বুধবার (১৬ নভেম্বর) পরিচালক আবু সালেহ চুন্নুকে বরখাস্ত করে একটি চিঠি দেয় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ।বরগুনার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক বরখাস্ত

বরগুনার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক বরখাস্ত

২০১৫ সালে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বরগুনা এলাকার পরিচালক নির্বাচনের আগে আগে সাধারণ গ্রাহকদের নাম ব্যবহার করে ঘরে বসে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সিল প্যাড ব্যবহার করে জাল ভোটার আইডি কার্ড বানান তিনি। পরে নির্বাচন এলে স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতার ছত্রছায়ায় নানা অপকৌশলের মাধ্যমে নির্বাচনে জয়লাভ করেন তিনি। নির্বাচনে জিতেই তিনি চালিয়ে যেতে থাকেন অনিয়ম দুর্ণীতি আর উৎকোচ বাণিজ্যের মহোৎসব। বিদ্যুৎ সংযোগ, খাম্বা সরবরাহ, মিটার নামিয়ে দেয়া, সাইডলাইন ইত্যাদি বিষয়ে সুযোগ সুবিধা পাইয়ে দেয়ার কথা বলে, কখনওবা বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নের হুমকী দিয়েও নানাবিধ অপকৌশলে তিনি শতশত সাধারণ গ্রাহকের কাছ থেকে হাতিয়ে নেন কয়েক কোটি টাকা।
পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বরগুনার ডিজিএম মো. আনোয়ারুল ইসলাম জানান, তিনি বরগুনায় সবে যোগদান করেছেন। মো. সালেহ উদ্দিন চুন্নুর অনিয়ম দুর্ণীতির বিষয়ে বিস্তারিত তার জানা নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন পটুয়াখালী আঞ্চলিক অফিসে একটি সভায় উপস্থিত হয়ে তিনি জেনেছেন যে, অনিয়ম দুর্ণীতির দায়ে তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।
পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বরগুনার সাবেক ডিজিএম (বর্তমানে পিরোজপুরে কর্মরত) মো. সাইফুল আলম জানান,  সালেহ উদ্দিন চুন্নুর বিরুদ্ধে একাধিক অনিয়ম দুর্ণীতির অভিযোগ উঠলে তা খতিয়ে দেখতে ঢাকা থেকে একটি তদন্ত কমিটি পাঠায় পল্লী বিদ্যুতায়ন (আরইবি) বোর্ড। চলতি বছর শুরুর দিকে পল্লী বিদ্যুতায়ন (আরইবি) বোর্ডের উপ-পরিচালক মো. মাসুদ রানার নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি বরগুনার বিভিন্ন গ্রামে সরেজমিন তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পায়। তদন্ত প্রতিবেদনে অনিয়ম দুর্ণীতির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গত বুধবার পরিচালক আবু সালেহ চুন্নুকে বরখাস্ত করে একটি চিঠি দেয় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ।
পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বরগুনা-পটুয়াখালী অঞ্চলের জিএম মনোহর কুমার বিশ্বাস বলেন, পরিচালক  সালেহ উদ্দিন চুন্নুর বরখাস্ত হওয়ার বিষয়ে তিনি অবগত রয়েছেন। তবে তার বিরুদ্ধে কী কী অভিযোগ ছিলো এবং কোন কোন অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অনিয়ম দুর্ণীতির তদন্ত এবং বরখাস্ত এসবের এখতিয়ার পল্লী বিদ্যুতায়ন (আরইবি) বোর্ডের। এসব বিষয়ে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডে যোগাযোগ করলে জানা যাবে বলে।
পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি) এর নির্বাহী পরিচালক মো. এমদাদুল ইসলামের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বরগুনা এলাকার পরিচালক মো. সালেহ উদ্দিন চুন্নুর বিরুদ্ধে অনিয়ম দুর্ণীতির একাধিক অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে অপসারণ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত পরিচালক মো. সালেহ উদ্দিন চুন্নু সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এ সংক্রান্ত কোন চিঠি তিনি এখনও পাননি। সম্পাদনা : এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির

 

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful