Templates by BIGtheme NET
Home / জাতীয় / কেশবপুরে পাকা ধান ক্ষেতে জোয়ারের পানি কৃষক বিপাকে- ক্ষতির আশংকা

কেশবপুরে পাকা ধান ক্ষেতে জোয়ারের পানি কৃষক বিপাকে- ক্ষতির আশংকা

আ.শ.ম. এহসানুল হোসেন তাইফুর কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: কেশবপুরের হরিহর নদের শাখা খোঁজাখালি খালের জোয়ারের পানিতে রবিবার রাতে বিল বলধালির পাকা ধান ক্ষেত তলিয়ে গেছে। পাকা ধানের গলায় গলায় পানি উঠে আসায় কৃষকরা ব্যাপক ক্ষতির আশংকা করছেন। ক্ষেতের কেটে রাখা ধান পানিতে ভাসতে দেখা গেছে। ধান কাটা মৌসুমে জোয়ারের পানিতে ক্ষেত তলিয়ে যাওয়ায় ওই বিলের কৃষকরা পড়েছেন বিপাকে।সরেজমিন বুধবার দুপুরে উপজেলার মূলগ্রামের বিল বলধালিতে গিয়ে দেখা যায়, খালের জোয়ারের পানিতে পাকা ধান ক্ষেত তলিয়ে গেছে।t-p বিলের কৃষকরা আশংকা করছে ধান পানির ভেতর পড়ে গেলে মাছে খেয়ে সাবাড় করে ফেলবে। অনেক কৃষককে কেটে রাখা ধান পানি ভেতর থেকে উপরে উঠিয়ে নিতে দেখা গেছে। আবার অনেককে দেখা গেছে ধানের শীষ উঁচু করে দিতে। ওই বিলের মূলগ্রামের কৃষক মকছেদ আলি তার ক্ষেতের তলিয়ে যাওয়া পাকা ধানের ভেতর দাঁড়িয়ে দু:খ করে জানান, এ অবস’ায় ধান নিয়ে তিনি কি করবেন কিছুই বুঝতে পারছেন না। তাঁর চার বিঘা জমির ধান এভাবেই তলিয়ে গেছে। বিল বলধালির কৃষক আব্দুল হাকিম জানান, তার এক বিঘা জমির ধান ক্ষেত তলিয়ে রয়েছে। এভাবে এলাকার কৃষকের ধান ক্ষেত তলিয়ে যাওয়ায় তারা পড়েছেন বিপাকে। পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্রে জানান গেছে, গত দু’দিনে নদীতে অস্বাভাবিক জোয়ার ছিল। সে কারণে বিল এলাকায় পানি উঠে আসতে পারে।উপজেলা কৃষি অফিসার মহাদেব চন্দ্র সানা জানান, পাকা ধান পানি ভেতর পড়ে গেলে কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি হয়ে যাবে। তবে ধান না পড়লে ক্ষতির সম্ভবনা খুবই কম।এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী সায়েদুর রহমান বলেন, নদ-নদীতে জোয়ার স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। জোয়ার বৃদ্ধির সম্ভবনা নেই। সে কারণে বিল এলাকায় পানি বৃদ্ধির আর কোন সম্ভবনা নেই।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful